14+টি ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কি কি | তালিকা = 2023

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার  Foods Rich in Vitamin D 

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার
ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কি কি? এ নিয়েই আজ আজকে বিস্তারিত আলোচনা করবে। 

 

ভিটামিন ডি একটি সর্বোচ্চ পুষ্টি যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই প্রয়োজন। এটি মূলত সূর্যের আলো থেকেই বেশি তৈরি হয়ে থাকে।

 তবে কিছু  কিছু খাবার রয়েছে। যা খাওয়ার ভিতরেই সূর্যের আলো ছাড়াই এই পুষ্টির চাহিদা পূরন করতে পারে।

 

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কি কি

ভিটামিন ডি প্রাথমিকভাবে সূর্যের আলো দ্বারা উৎপন্ন হয়। এটি আমাদের শরীরে ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস সঠিকভাবে সরবরাহ করার জন্য মূল ভূমিকা পালন করে। এটির চাহিদা পুরন করতে হলে স্বাস্থ্যকর খাবারের যুক্ত করা জরুরী।

 

যে সকল খাবার থেকে সহজেই ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার পাওয়া যায়। এমন কিছু খবার সম্পকর্কে নিচে আলোচনা করা হয়েছে।

মাছ 

সামুদ্রীক মাছ ভিটামিন ডি এবং অমেগা-3 ফ্যাটি এসিডের একটি উৎস বলা যেতে পারে। কেননা এমন কিছু মাছ রয়েছে। যা থেকে খুবই ভালো পরিমাবে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। তার মধ্যে  সার্মন, টুনা, ম্যাকারেল এবং সার্দিন এ ভরপুর ভিটামিন ডি পাওয়া যায়।

 

ডেয়রি প্রোডাক্ট বা দুগ্ধ জাতীয় খাবার:

 দুগ্ধ জাতীয় খাবার এবং ডেয়রি প্রোডাক্ট থেকে সহজেই ভিটামিন ডি সরবরাহ করে। দুধ, দই, চিজ এবং মাঠা, ঘী, মাখন ইত্যাদি থেকে, প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়।  নিয়ম করে প্রতিদিন খেলে আপনার শরীরের ভিটামিন ডি এর চাহিদা অনেকটাই পূরন হবে বলে আশাকরি। 

 

ক্যানাডিয়ান মুষুর ডাল

 এই ডালে ভিটামিন ডি অত্যন্ত উচ্চ পরিমাণে পাওয়া যায়। এটি বাড়িতে সহজেই তৈরি করা যায়। এবং মুষুর ডালের রুচি অনুসারে বিভিন্ন স্বাদে ব্যবহার করা যায়। তবে মুষর ডাল ভুনা করে খেলে গরুর মাংসের স্বাদ পাওয়া যায়। 

 

খাসির মাংস

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার খাসির মাংস
ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার খাসির মাংস

খাসির মাংস ভিটামিন ডি এবং অন্যান্য পুষ্টি গুনপ ভরপুর। অন্যান্য মাংসের তুলনায়ন খাসির মাংসে vitamin D বেশি পাওয়া যায়।  ভিটামিন ডি এর পাশাপাশি প্রোটিন (protein) এর চাহিদাও পুরন করে।

সার্ডিন মাছ

সার্ডিন একটি ছোট মাছ যা ভিটামিন ডি সহ অনেক প্রকারের ভিটামিন সরবরাহ করে। এটি আপনার প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন।

 

ইলিশ মাছ

ইলিশ হলো বাঙালির জাতীয় মাছ। তবে এই মাছ জাতীয় হলেও, বর্তমান বাজারে এর দামের পরিমান এতোটাই বেড়ে গেছে। যা সবার ক্রয় ক্ষমতার ভিতরে নেই। এই ইলিশ মাছকে সোনার হরিণ বললে বোধায় ভুল হবে না।

 

যাই বলুননা কেনো- ভিটামিন ডি এর চাহিদা পরন করে ইলিশ মাছ অত্যান্ত কার্যকর ভূমিকা রাখে। তাই আপার যদি ইলিশ ক্রয়ের ক্ষমতা থাকে। তাহলে প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার হিসাবে রাখতে পারেন।

 

মাশরুম: 

মাশরুম ভিটামিন ডি তৈরি করতে সাহায্য করে। এই মাশরুপ একমাত্র প্রাকৃতিক খাদ্য যা থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। ডি ২ (D2) ভিটামিন সরবরাহ করে থাকে এই মাশরুম।  যার মাধ্যমে আপনার শরীরে ভিটামিন ডি তৈরি করতে সাহায্য করে। তাই শরীরে ভিটামিন ডি এর চাহিদা পূরন করতে মাশরুম খেতে পারেন।

ডিমের কুসুম:

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার ডিমের কুসুম
ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার ডিমের কুসুম

 ডিমের কুসুমে থাকে বেশি পরিমাণে ভিটামিন ডি ( Vitamin D)। ডিমের কুসুম ভিটামিন ডি এর একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস। এই কুসুমে ভিটামিন ডি এর পাশাপাশি প্রোটিন, ফ্যাট সহ অন্যান্য পুষ্টিগুন পাওয়া যায়। প্রতিদিন একটি করে ডিম খেলে অনেক শক্তি পাওয়া যায়। 

ফ্যাটি মাছ: 

ফ্যাটি মাছে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমানে Vitamin D।  তার মধ্যে  টুনা মাছ, ম্যাকরেল মাছ এবং স্যালমন জাতীয় মাছ অন্যতম। 

মাছের তেল – Cod liver oil

মাছের তেল বা  liver oil -এ রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি। এতপ রয়েছে ওমেগা 3, ফ্যাটি অ্যাসিড ইত্যাদি। সমষ্টিগত ভাবে হার্ট ভালো রাখতে এবং শরূরে পুষ্টি যোগাতে খুবই উপকারী

 

সূর্যের আলো 

সব থেকে প্রাকৃতিক উপায়ে এবং বিনা খরচে, আমাদের ভিটামিন ডি এর মাত্রা পূরন করে একমাত্র সূর্যের আলো। আল্লাহর পক্ষ থেকে মানব জাতীয় জন্য সূর্যের আলো একটি নেয়ামত।

Read More>> ভিটামিন ডি বেশি খেলে কি হয়

 সূর্যের আলোর দেয়া ভিটামিন ডি একটি অত্যন্ত সুস্থ উৎস। সকালে সূর্যোদয়ের সময়ে আপনি যদি কিছু সময় এই আলোতে থাকেন। তাহলে আপনার শরীরের ভিটামিন ডি এর চাহিদা পূরন হয়ে যাবে ৯০% এর চেয়েও বেশি। তাই ভিটামিন ডি যুক্ত খাবারের থেকে সূর্যের আলোর গুরুত্ব অপরিসীম। 

 

পুষ্টিকর খাবার খাওয়া 

দৈনন্দিন খাবারের তালিকায় পুষ্টিকর খাবার খান। এমন খাবার যেগুলি ভিটামিন ডি সরবরাহ করতে প্রস্তুত। মাছ, দুধ, দই, খাসির মাংস, ক্যানেডিয়ান মুষুর ডাল এবং সার্ডিন এই সকল খাবার প্রতিদিন খাওয়ার চেষ্টা করুন।

 

উপযুক্ত খাবার খান

আপনার খাবারে যে খাবার যোগ করছেন। তা ভিটামিন ডি এর জন্য উপযুক্ত কিনা। সেদিকে খেয়াল রাখুন।  ভিটামিন ডি সহ পুষ্টিকর খাবারের সমৃদ্ধি নিশ্চিত করার জন্য নিয়মিতভাবে সেই খাবার খান।

 

ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট 

উপরে আলোচিত খাবার খাওয়ার পরেও, যদি আপনার ডি এর চাহিদা পুরন না হয়।তাহলে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট সেবন করতে পারেন। সেইক্ষেত্রে অবশ্য অবশ্য একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিন। সাপ্লিমেন্ট সেবন করার আগে ঐ বিষয়ে সঠিক জ্ঞান অর্জন করে নেন।

 

সমাপ্তির

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার সেবন করার মাধ্যমে আপনি আপনার শরীরে ভিটামিন ডি স্তর বৃদ্ধি করতে এবং সুস্থ থাকতে সাহায্য করতে পারেন। সবুজ সবজি, ফল, মাছ, ডেয়ারি প্রোডাক্টস ভিটামিন ডি প্রায়ই পাওয়া যায়। যা আপনার পুষ্টি এবং স্বাস্থ্য উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে।

 

এই  সকল খাবারগুলি আপনার শরীরে, ভিটামিন ডি এর স্তর উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে। তবে, শরীরে ভিটামিন ডি এর স্তর যথাযথ পূরনের জন্য অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

জরুরী কোন প্রয়োজনে কিংবা কোথাও বুঝতে অসুবিধা হলে। এই লিংকে ক্লিক করে আমাদের জানাতে পারেন।

 

62 Comments on “14+টি ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার কি কি | তালিকা = 2023”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *