ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়? | Vitamin D Deficiency-2023

ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়

ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয় এ সম্পর্কে আজকের আলোচনা। এর ক্ষতিকর প্রভাব ও প্রতিরোধ  সম্পর্কে থাকছে বিস্তারিত আলোচনা। তাই পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ার অনুরোধ রইলো।

ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়
ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়

ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়

আনরা জানি ভিটামিন ডি একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান। যা স্বাস্থ্যকে সামনযস্য রাখতে কাজ করে। এটি সাধারণত সূর্যের আলোর মাধ্যমে মানব দেহে প্রবেশ করে। 

 যেখানে ভিটামিন ডি এর কাজ হলো, দেহের ভিতরে ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস উপাদান ও নিয়ন্ত্রণ করা। 

 

ভিটামিন ডি এর অভাবে বিভিন্ন সমস্যার প্রভাব ফেলতে পারে।এরই ধারাবাহিকতা নিয়ে সাজানো হয়েছে আজকের এই আরটিকেল।

 

ভিটামিন ডি এর অভাব জনিত লক্ষণ:

ভিটামিন ডি এর অভাব যে সকল সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে,  তা নিছে আলোচনা করা হলো।

ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়
ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয়

হাড় ও দাঁতের সমস্যা 

ভিটামিন ডি এর অভাব হলে হাড় ও দাঁতের সমস্যা দেখা দেতে পারে। যেমন হাড়ে দুর্বলতা, দাঁতের দুর্বলতা, হাড়ে সমস্যা ইত্যাদি। এর ফলে হাড়ের জয়েন্টে জয়েন্টে ব্যথা হতে পারে। 

 

অসয্যকর যন্ত্রনা দেখা দিতে পারে। দাঁতে শিরশির ব্যথা হতে পারে। হাত ভাঙ্গা, দাত দিয়ে রক্ত পরা সহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে।

 

তাই আপনি যদি এরকম লক্ষনগুলো দেখতে পান। তাহলে অবশ্যই একজন ডাক্তার এর সরনাপর্ণ হবেন।

 

মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যা

ভিটামিন ডি অভাবের কারণে মস্তিষ্কে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে। তার মধ্যে ডিপ্রেশন, উদ্বেগ, মানসিক অস্থিরতা, নিউরোলজিক সমস্যা, মনোবিজ্ঞানিক সমস্যা, ঘুমের সমস্যা ইত্যাদি।

 

কেননা  ভিটামিন ডি মস্তিষ্কের সেরমোনের কাজ করে। যা মানসিক স্বাস্থ্য ও নিউরোলজিক প্রক্রিয়াগুলির অন্যতম কারণ। এই ধরনের সমস্যাগুলির ক্ষেত্রে একজন ডাক্তারের পরামর্শ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।

 

মাংসপেশীতে দুর্বলতা অনুভব করা

মাংসপেশীতেও বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেতে পারে এই ভিটামিন ডি অভাবের কারণে। যেমন মাংসপেশীতে দুর্বলতা, মাংসপেশীতে ব্যাথা অনুভব করা। 

এই সমস্যাগুলির কারণে মাংসপেশীতে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দেয়া। মাংসপেশীর ভিতর থেকে নিত্রোজেনের অভাবও হতে পারে। এই সকল সমস্যা দেখা দিলে, অতিদ্রুত এর প্রতিরোধ এবং চিকিৎসা জন্য একজন ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত।

 

চোখে সমস্যা

 

vitamin D এর অভাবের ফলে চোখে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেতে পারে। যেমন- নাইট ব্লাইন্ডনেস বা রাতে কম দেখা।  ধীরে ধীরে দৃষ্টিশক্তি হ্রাস হতে পারে।এর  প্রতিরোধ এবং চিকিৎসা জন্য ডাক্তারের পরামর্শ অত্যন্ত জরুরি।

 

প্রসবের সমস্যা 

 

ভিটামিন ডি অভাবের কারণে গর্ভাবস্থা সময়ে কিছু সমস্যা হতে পারে। যেমন, গর্ভধারণের সময় পেটের অসুবিধা হতে পারে। এবং প্রসবের সময় জ্বালাপোড়া দেখা যেতে পারে। 

 

শুধ তাই নয়, আপনার পেটে থাকা সন্তানের ওজন বৃদ্ধির জন্যও সমস্যা হতে পাবে।

আরও পড়ুনঃ শাল দুধ কাকে বলে কিংবা শাল দুধ কি

এই সমস্যাগুলির সমাধানের জন্য, আপনি একটি ডাক্তার বা মাতৃত্ব স্বাস্থ্য পেশাদারের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। তাদের পরামর্শ অনুসরণ করে আপনি মাতৃশ্রীর স্বাস্থ্য সমস্যাগুলি মিটাতে সাহায্য পেতে পারেন।

 

মানসিক সমস্যা:

D- vitamin এর অবাবে  মানসিক স্বাস্থ্যে সমস্যাও দেখা দিতে পারে। যেমন ডিপ্রেশন এবং উদ্বেগ উৎকন্ঠা ইত্যাদি। আর আমাদের ডো ভালো করেই জানা আছে যে, মানসিক সমস্যা হলে মস্তিষ্ক ভালো ভাবে কাজ করে না। মাতাল মাতাল লাগে। কোন কিছুই ভালো লাগেনা। 

 

ডায়াবেটিস 

কিছু গবেষণা গেছে যে, ভিটামিন D এর অভাবে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়তে পারে। যেমনঃ- ডায়াবেটিস টাইপ ১ এবং টাইপ ২.

 

ভিটামিন ডি এর অভাবে কোন রোগ হয়?

ভিটামিন ডি অভাব হলে বিভিন্ন সমস্যার সম্ভাবনা থাকে। যেমন:

ভিটামিন ডি এর অভাবে কোন রোগ হয়

রিকেটস (Rickets)

এটি একটি শিশুবয়স্থা সমস্যা। এর ফলে হাড়ে অসস্তি। ক্যালসিয়াম এবং ফসফেটের অভাব দেখা দেয়। যা মজবুত হাড় গঠনে বিঘ্ন সৃষ্টি করে।

 

ওস্টিওপোরোজিস (Osteoporosis) 

ভিটামিন ডি অভাব হলে অস্থির কমপ্লেক্স হতে পারে। যা অস্থির শক্তির কমতে সহায়ক হতে পারে।

 

মানসিক সমস্যা (Mental Health Issues)

ভিটামিন ডি সম্পর্কিত অভাব মানসিক সমস্যার ও সৃষ্টি করতে পারে। এর প্রভাবে ডিপ্রেশন এবং উদ্বেগ উৎকন্ঠা ইত্যাদি দেখ দিতে পারে। পাগল হয়ে রাস্তায় রাস্তায়ও ঘোরার মতো ব্যবস্থা করতে পারে।

আরও পড়ুনঃ  ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার

ক্যান্সার সম্ভাবনা

 আপনার শরীরে যদি ভিটামিন সি এর অভাব দেখা দেয়।  তাহলে  ক্যান্সারের মতো মরণঘাতী রোগও হতে পারে।

 

 এই সকল সমস্যাগুলির প্রতিরোধ বা সমাধান করতে হলে।  ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করাটাই বুদ্ধিমান এর কাজ।

 

ভিটামিন ডি এর অভাব হলে করণীয়

 নির্ধারিত কোন সময় ছাড়াই  আপনার শরীরে ভিটামিন ডি এর অভাব হতে পারে।

তবে উপরে বর্ণীত কারনগুলোর, যে কোনটি কারন দেখা দিলেই। আপনি ধরে নিতে পারেন vitamin D এর অভাব হয়েছ। আর এর জন্য করণীয় কিছু দিক রয়েছে। যা ফলো করলে আপনি এই অভাব থেকে রক্ষা পেতে 

ভিটামিন ডি অভাবের সময় করণীয় নিম্নলিখিত পরামর্শগুলি অনুসরণ করুন:

 

ডাক্তারের পরামর্শ

প্রথমেই, ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করে নিজের সমস্যা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করুন। ডাক্তার ব্যাক্তিগত পরামর্শ ও পরীক্ষা মাধ্যমে উপযুক্ত উপায় পরামর্শ দেবেন। এটাই হলো উত্তম পন্থা।

 

খাদ্য তালিকায় ভিটামিন ডি যোগ করুন

  আপনি আপনার প্রতিদিন খাবারের তালিকায়, ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার রাখতে পারেন। যেমন মাছ, ডেয়িরি প্রোডাক্টস, মানবহার, সাঁজিবান ইত্যাদি।

সূর্যের আলোতে সময় কাটান 

সকল উৎস গুলোর মধ্যে সূর্যের আলো হলো ভিটামিন ডি এর মহান উৎস। কারণ, সূর্যের আলো থেকে আসে উচ্চ স্তরের ভিটামিন ডি। 

সকালের সূর্যের আলোতে বসে থাকুন। আর যূি পারেন সকালে আলোতে একটু হাটাহাটি করেন। তাহলে দেখবেন আপনার সমস্যা গুলো। ধীরে ধীরে সেরে যাবে।

প্রাকৃতিক খাবার গ্রহনঃ

অন্যান্য পুষ্টি উপাদান গুলির সাথে প্রাকৃতিক খাবার খাওয়াটাও জরুরী। মাংস, মাছ, ডেয়ারি প্রোডাক্টস, সবজি এবং ফল আপনার পূর্ণ পুষ্টির জন্য যথেষ্ট হতে পারে। 

প্রতিদিন ব্যায়াম- হাঁটাচলা করুন

ভিটামিন ডি অভাব প্রতিরোধে বাচ্চা ও প্রসব মহিলাদের জন্য ব্যায়াম কিংবা হাঁটা চলা করলে। হাড্ডির জয়েন্ট গুলো সতেজ থাকে। 

 শাক সবজি খাওয়াঃ

বেশ কিছু শাক সবজি রয়েছে। যা প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখলে, ভিটামিন ডি এর অভব পূরন করা সম্ভব। শাক সবজির ভিতরে রয়েছেঃ-

 

  •  স্পিনাচ
  •  কেল
  • কাউলিফ্লাওয়ার
  • ব্রোকলি

 

 ইত্যাদি অমূল্য ভিটামিন ডি সরবরাহ করতে সাহায্য করতে পারে। তাই আপনার খাূ্য তালিকায় এই সকল শাক সবজি রাখাটাই বেশ ভালো হবে।

 

ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্টস 

যদি আপনি শাক-সবজি,ফলমূল, মাছ-মাংস এগুলো চিবিয়ে খেতে অক্ষম হন। কিংবা মুখে খাওয়ার মতো কোন রুচিই না থাকে।

 

তাহলে অবশ্যই ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট নিতে পারেন। কিন্তু এই ক্ষেত্রে অবশ্যই অবশ্যই একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

Read More >> 14+টি ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার তালিকা

ডাক্তারের নির্দেশনা মেনে চলুন

ডাক্তার যেই চিকিৎসা বা পরামর্শ প্রদান করেন। তা অনুসরণ করুন। যেসব ক্ষেত্রে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট প্রদান করা প্রয়োজন হয়। তা ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী গ্রহন করুন।

 

এক কথায় বলতে গেলে, ভিটামিন ডি এর অভাবের সময়। ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করে। তার পরামর্শ ও নির্দেশনা মেনে চলাই উত্তম।

 

 ভিটামিন ডি এর অভাবে প্রায়ই শরীরে ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস স্তরের সমস্যা সৃষ্টি করে। এর ফলে হাড়ে দুর্বলতা, মাংসপেশীর সমস্যা, চোখের সমস্যা ইত্যাদি দেখা যেতে পারে। এই সমস্যাগুলি সামান্য খাবার ও সূর্যের আলোর মাধ্যমে পূরণ করা সম্ভব। যদি প্রয়োজন হয়, ডাক্তারের পরামর্শে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্টস নিতে পারেন।

 

শেষ কথা 

পরিশেষে আমরা ভিটামিন ডি এর অভাবে কি হয় তা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পেলাম। সেই সাথে ভিটামিন ডি এর অভাব হলে করণীয় বিষয়গুলো সম্পর্কেও জানতে পারলাম।

 

আমরা যদি উপরের আলোজনা সাপেক্ষে স্বাস্থ্যের উন্নতি করার চেষ্টা করি। তাহলে আশা করি, আমাদের শরীরে ভিটামিন ডি এর অভাব থাকবে না। এর পরেও যদি কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হয়। তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাহিলে,  এই লিংকে ক্লিক করুন। 

 

আমাদের সম্পর্কে জানতে, এই লিংকে ক্লিক করুন। 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *